ফেব্রুয়ারী 4, 2023

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

অঞ্জলি , সিঁদুর খেলায় অনুমতি নয় হাইকোর্টের

মণ্ডপের ভিতরে অঞ্জলি, সিঁদুর খেলায় অনুমতি দিল না কলকাতা হাইকোর্ট। সন্ধিপুজোর সময় নির্ধারিত সংখ্যার বেশি মানুষ মণ্ডপে থাকতে পারবেন না বলে নির্দেশ দিল আদালত। তবে বুধবারের রায়ে ঢাকিদের নো এন্ট্রি জোনে ঢোকার অনুমতি দিয়েছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের এজলাসে রিভিউ পিটিশনের এদিন শুনানি হয়। বুধবার শুনানির দু’টি ক্ষেত্রে সামান্য ছাড় দিয়ে কার্যত আগের রায়ই বহাল রেখেছেন দুই বিচারপতি। বড় পুজোগুলোর মণ্ডপে কমিটির ৬০ জন সদস্য থাকতে পারবেন।

একসঙ্গে সর্বোচ্চ ৪৫ জন মণ্ডপে ঢুকতে পারবেন। অন্য দিকে ছোট পুজোর ক্ষেত্রে নো এন্ট্রি জোনে ঢোকার জন্য ৩০ জনের তালিকা রাখা গেলেও একসঙ্গে ১৫ জনের বেশি ঢুকতে পারবেন না।

এদিন সকালে শুনানি শুরু হলে কলকাতার দুর্গাপুজো কমিটিগুলির যৌথ ফোরামের তরফে আবেদনে বলা হয়, তারা কোনও ছাড় চাইছেন না। শুধু মণ্ডপগুলোতে যেন স্থানীয়দের সপ্তমী থেকে নবমী পর্যন্ত প্রবেশের অধিকার দেওয়া হয়। যাতে তাঁরা পুজো দিতে পারেন। তাঁদের প্রবেশ ও বেরিয়ে যাওয়ার জন্য আলাদা পথ থাকবে।

কিন্তু আদালত সরাসরি সেই আবেদন মেনে নেয়নি। তবে জানিয়েছে, পুজো কমিটির ৬০ জনের তালিকা রোজ পরিবর্তন যোগ্য। উল্লেখ্য, আগের রায়েই বিচারপতিরা জানিয়েছিলেন ৩০ বর্গমিটারের বেশি এলাকা জুড়ে যে সব প্যান্ডেল তৈরি হয়েছে, সেগুলিকে বড় পুজো হিসেবে ধরা হবে। তার কম এলাকা হলে সেগুলি ছোট পুজো।

রায়ের পর ফোরাম ফর দুর্গোৎসব কমিটির সাধারণ সম্পাদক শাশ্বত বসু বলেন, ‘‘এটা আমাদের নৈতিক জয়। আগের রায়ে মাত্র ২৫ জনের ঢোকার অনুমতি ছিল। এত কম লোক নিয়ে কী ভাবে মণ্ডপে পুজো হবে? নতুন নির্দেশে সেই সংখ্যাটা বেড়ে একসঙ্গে বড় মণ্ডপের ক্ষেত্রে ৪৫ জন এবং ছোট পুজোয় ১৫ জন ঢুকতে পারবেন। এই তালিকা প্রতিদিন পাল্টানো যাবে। ফলে অনেক বেশি মানুষ মণ্ডপে ঢোকার সুবিধা পাবেন।’’‘

Share this News
error: Content is protected !!