ফেব্রুয়ারী 2, 2023

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

আসুন বেহালায় ,দর্শন করুন মা বৈষ্ণদেবীর মন্দির

রাহুল গুপ্ত , কলকাতা

হিন্দুদের অন্যতম পবিত্র তীর্থস্থান হিসেবে জম্মু ও কাশ্মীরের বৈষ্ণদেবীর মন্দির ধরা হয়। এই দেবীর দর্শন পেলেই জীবনের মনোবাঞ্ছনা পূরণ হয়, এমনটাই প্রচলিত। এই মন্দিরটি জম্মু-কাশ্মীরের কাটরাতে অবস্থিত। প্রতি বছর এই মন্দিরে আসেন লক্ষ লক্ষ ভক্ত দেবীর পুজো দিতে।

বয়েসের ভারে কিংবা সময়ের অভাবে অথবা দুর্গম রাস্তা অতিক্রম করে আপনি যেতে পারছেন না সেখানে ? চিন্তা নেই , এবার বেহালায় মা বৈষ্ণদেবীর মন্দির আপনি দর্শন করতে আসতেই পারেন। কলকাতা পুরসভার ১১৬ নম্বর ওয়ার্ড এটি , বেহালা পূর্বের অন্তর্গত বেহালায় বহু প্রাচীন মন্দির মা চণ্ডীদেবীর মন্দির। সেই মন্দির সংলগ্নই বিরাট পুকুর , সেই পুকুর সৌন্দর্যয়াণ করে , তার উপর আধুনিক ভাবেই ধীরে ধীরে গড়ে উঠছিল মা বৈষ্ণদেবীর মন্দির।

১৮ জানুয়ারী , বছরের শুরুতেই বেহালা সহ কলকাতা এমনকি গোটা রাজ্যের মানুষের জন্য এক দারুন উপহার মা বৈষ্ণদেবীর মন্দির। যাঁর ব্রেন চাইল্ড এই পরিকল্পনা তিনি হলেন কলকাতা পুরসভার মেয়র পারিষদ এবং ১১৮ নম্বর ওয়ার্ডের দীর্ঘদিনের পৌরপিতা শ্রী তারক সিং। বর্তমানে এই মন্দির কমিটির সভাপতিও তিনিই। তাঁর হাত ধরেই এই বিরাট দক্ষযজ্ঞ। এদিন মা বৈষ্ণদেবীর মন্দিরের আনুষ্ঠানিক শুভসূচনা হয়ে গেল।

প্রধান অতিথি হিসাবে থাকলেন রাজ্যের দমকল মন্ত্রী – বিধায়ক সুজিত বসু , থাকলেন রাষ্ট্রমন্ত্রী পরিবহন দিলীপ মন্ডল , বিশেষ অতিথি হিসাবে এলেন রামকৃষ্ণ মিশন ইনস্টিটিউট অফ কালচার গোলপার্কের সম্পাদক স্বামী সুপর্ণানন্দ মহারাজ , এলেন দক্ষিণ কলকাতার সাংসদ মালা রায় , বেহালা পূর্বের বিধায়ক রত্না চট্টোপাধ্যায় , জোড়াসাঁকো কেন্দ্রের বিধায়ক বিবেক গুপ্ত , ১১৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কৃষ্ণা সিং , ১১৭ এর কাউন্সিলর অমিত সিং , বিশিষ্ট সমাজসেবী কৈলাস খান্ডেলওয়াল , বাবুন ব্যানার্জী সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলররা। উদ্বোধক হিসাবে এলেন রাজ্যের নগরউন্নয়ণ মন্ত্রী – কলকাতার মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম। তাঁর হাত ধরে এদিন এই মন্দিরের দ্বার খুলে গেল সবার জন্য।

ঢাক বাজিয়ে , শঙ্খ ধ্বনি দিয়ে সব অতিথিদের বরণ করা হয় এদিন। এক সাথে এক সুরে ঢাকের বাদ্দি। আলোয় , মালায় সেজে উঠেছিল গোটা মন্দির চত্বর। পুরোহিতের মন্ত্রোচ্চারণ , যজ্ঞ এর আয়োজন। মা চন্ডীর মন্দির দর্শন করেই আপনি সোজা এখন চলে যেতে পারবেন মা বৈষ্ণদেবীর মন্দির দর্শন করতে।

শুধু বেহালার মানুষের জন্য নয় , গোটা রাজ্যের মানুষের জন্য এই মন্দির করতে পেরে স্বাভাবিকভাবেই মুখে তৃপ্তির হাঁসি মেয়র পারিষদ এবং মন্দির কমিটির সভাপতি তারক সিং এর মুখে। দিশা শক্তি নিউজ কে বললেন তাঁর অনুভূতির কথা।

১১৬ নম্বর ওয়ার্ডে অবস্থিত এই মন্দির। এই ওয়ার্ডের দীর্ঘদিনের পৌরমাতা কৃষ্ণা সিং বললেন অনেকে যেতে পারেন না জম্মু-কাশ্মীরের কাটরাতে তাঁদের কথা মাথায় রেখেই এই মন্দির আজ প্রতিষ্ঠিত।

পাশের ওয়ার্ড ১১৭ এর কাউন্সিলর অমিত সিং বললেন মা চন্ডী থেকে খাটুসামবাবা , হনুমান জীর মন্দির সহ শিব , শীতলা মায়ের মন্দির দর্শন করে মা বৈষ্ণদেবীর মন্দির দর্শন করে দর্শনার্থীরা এবার থেকে বেরোবেন এই চত্বর থেকে।

বেহালা পূর্বের বিধায়ক রত্না চ্যাটার্জি বললেন তাঁর বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে গোটা রাজ্যের জন্য এক দারুন দর্শনীয় স্থান হল এই মন্দির। মন্ত্রী সুজিত বসু থেকে মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম ধন্যবাদ জানালেন মেয়র পারিষদ এবং মন্দির কমিটির সভাপতি তারক সিং কে এইধরণের এক ভাবনা কে বাস্তবায়িত করার জন্য। রামকৃষ্ণ মিশন ইনস্টিটিউট অফ কালচার গোলপার্কের সম্পাদক স্বামী সুপর্ণানন্দ মহারাজ তাঁর অনুভূতির কথা। রাষ্ট্রমন্ত্রী পরিবহন দপ্তর দিলীপ মন্ডল বললেন সত্যি এই ভাবনা প্রশংসার যোগ্য। একার পক্ষে এই কাজ করা সম্ভব ছিল না , আজ সবাই যদি এগিয়ে না আসতেন তাহলে সম্ভব হত না এই মন্দির সম্পূর্ণ করা। সবাইকে ধন্যবাদ জানালেন মেয়র পারিষদ এবং মন্দির কমিটির সভাপতি তারক সিং।

এরপর মানুষের ঢল নামে মন্দির এবং মা কে দর্শন করার জন্য। মায়ের শান্ত সিন্গ্ধ রূপ। কাশ্মীরের মা বৈষ্ণদেবী মন্দির বিশ্বে সবচেয়ে পবিত্রতম স্থান হিসাবেও পরিচিত। এই মন্দিরকে ঘিরে রয়েছে এক শক্তিশালী পজিটিভ এনার্জি।

এখন থেকে রাজ্যের মানুষ কিংবা দেশের অন্য প্রান্তের মানুষও যদি কলকাতায় আসেন , তাহলে একবার বেহালার চণ্ডীতলার মেইন রোড সংলগ্ন এই মা বৈষ্ণদেবী মন্দিরে আসুন।

FOLLOW US :: Face Book , Youtube Address : dishashaktinews // Portal Address : www.dishashaktinews.com

Share this News
error: Content is protected !!