মে 25, 2022

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

তিন মেয়েকে দামোদরে ডুবিয়ে মারার চেষ্টা বাবার


নিজস্ব সংবাদদাতা : পশ্চিম বর্ধমানের কুলটিতে ৩ মেয়েকে দামোদরে ভাসিয়ে দেওয়ার অভিযোগ। আটক অভিযুক্ত বাবা। স্থানীয় এক বাসিন্দার তত্পরতায় উদ্ধার এক মেয়ে। নিখোঁজ ২ শিশুকন্যা। তাদের খোঁজে নদে তল্লাশি পুলিশ ও সিভিল ডিফেন্সের।অভিযুক্ত বাবা মিথিলেশ ঠাকুরকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, এলাকায় যেখানে সিভিল ডিফেন্সের লোকজন আছে, সেই রাস্তা ধরেই নদে নামিয়ে এনে ৩ শিশুকন্যাকে নিয়ে যায় মিথিলেশ। পাথর-চূড়ার ওপারে গভীর জলে তাদের ফেলে দেয় সে। সেটি দেখতে পান ওয়াটার রিজার্ভওয়্যারের এক কর্মী। তিনি জলে ঝাঁপ দিয়ে উদ্ধার করেন বড় মেয়েটিকে।বাকি দু’জনের খোঁজ মেলেনি। কুলটি থানার চিনাকুড়ি লাইন পাড়ের বাসিন্দা মিথিলেশ ঠাকুর। মুদির দোকানে সামান্য মাইনের ভরসায় চলে সংসার। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, মিথিলেশের প্রথম পক্ষের স্ত্রী দুই মেয়েকে রেখে সাত বছর আগে মারা যান। বছর তিনেক আগে দ্বিতীয় বার বিয়ে করেন মিথিলেশ। ফের এক কন্যা সন্তান হয় তাঁর। তিন মেয়ের ভবিষ্যত্ চিন্তা করে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন তিনি। স্নান করার অজুহাতে তিন মেয়েকে নিয়ে দামোদর নদের পারে যান মিথিলেশ। এরপর একের পর এক তিন মেয়েকে জলে ছুড়ে ফেলে দেন। মেয়েদের বাঁচানোর তাগিদে , বড় করার তাগিদে যে দেশে বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও , কন্যাশ্রীর মতো কর্মসূচি গ্রহণ করতে হয় সরকারকে সেই দেশ কোন অবক্ষয়ের পথে চলছে ? জানা নেই।

Share this News
error: Content is protected !!