জানুয়ারী 28, 2023

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

নুসরত-সৃজিত-মহুয়াদের বিরুদ্ধে আইনি নোটিস

নিজস্ব সংবাদদাতা : অষ্টমীর সকালে সুরুচি সংঘের পূজামণ্ডপে অঞ্জলি দিতে দেখা যায় অভিনেত্রী তথা সাংসদ নুসরত জাহান ও তাঁর স্বামী নিখিল জৈনকে। এছাড়াও মণ্ডপে অঞ্জলি দেন চিত্র পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় ও তাঁর স্ত্রী মিথিলা। মণ্ডপে তাঁদের ঢাকের তালে নাচতেও দেখা যায়। এছাড়াও মণ্ডপে প্রবেশ করে অঞ্জলি দিয়েছেন আরেক সাংসদ মহুয়া মৈত্রও। পুজো মণ্ডপে ‘নো এন্ট্রি’-র নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। কিন্তু সেই নির্দেশ অমান্য করে যে সব সেলিব্রিটিরা ক্লাব সদস্য না হয়েও অষ্টমীর সকালে মণ্ডপে প্রবেশ করে অঞ্জলি দিয়েছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে এবার আইনি ব্যবস্থা নিতে চলেছেন মামলাকারী অজয় কুমার দে’র আইনজীবী সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায়। সব্যসাচীবাবু বলেন, আদালত যে নির্দেশ দিয়েছে তা লঙ্ঘন করা হয়েছে । বলা হয়েছিল উদ্যোক্তা ছাড়া আর কেউ মণ্ডপে ঢুকতে পারবেন না। তাহলে সেলিব্রেটি হলে বা তাঁদের স্বামী কিংবা স্ত্রী হলে আদালতের নির্দেশের ঊর্দ্ধে ওঠা যায়? যদিও নুসরতের তরফে তাঁর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন যে নুসরত তিন বছর আগে থেকেই সুরুচি সংঘের সদস্য। সেক্ষেত্রে তিনি সেখানে অঞ্জলি দিতে গিয়ে কিছু ভুল করেননি। এক্ষেত্রে আদালতের নির্দেশ লঙ্ঘিত হয়নি। নুসরতের মতোই চিত্র পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় ও সুরুচি সংঘের সদস্য বলে জানা গিয়েছে। তবে প্রশ্ন উঠছে নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন ও সৃজিতের স্ত্রী মিথিলাকে নিয়ে। কারণ মিথিলা বাংলাদেশের নাগরিক। নিখিল জৈন সুরুচি সংঘের সদস্য কি না, সে ব্যাপারে অবশ্য কিছু জানাননি নুসরতের মুখপাত্র। কোভিড পরিস্থিতিতে ভিড় রুখতে ঐতিহাসিক রায় দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টের দুই বিচারপতি অরিজিত্ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ। পরে ফোরাম পর দুর্গোত্সবের পুনর্বিবেচনার আবেদনে সামান্য কিছু বদল করলেও রায়ের বিশেষ কোনও বদল করেনি হাইকোর্ট।

Share this News
error: Content is protected !!