জানুয়ারী 30, 2023

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

পেঁয়াজের কালোবাজারি রুখতে কড়া রাজ্য সরকার


নিজস্ব সংবাদদাতা : এখন গোটা রাজ্য জুড়ে পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ৮০ টাকা ছুঁয়ে ফেলায় পেঁয়াজের মজুতকরণ নিয়েও কড়া নির্দেশ দিল নবান্ন। বাজারে পেঁয়াজের সরবরাহ বজায় রাখতে সরকারের নির্দেশ, কোনও পাইকারি বিক্রেতা ২৫ মেট্রিক টনের বেশি পেঁয়াজ মজুত করতে পারবেন না। কোনও খুচরো বিক্রেতা সর্বাধিক ২ মেট্রিক টন পেঁয়াজ মজুত করতে পারবেন। তার বেশি নয়। এর অন্যথা দেখলে সরকার ব্যবস্থা নেবে। গত বছর পেঁয়াজের দাম প্রতি কেজি ১০০ টাকা পৌঁছে গেলেও মজুত বন্ধে রাজ্য সরকার কোনো নির্দেশ জারি করেনি। কিন্তু চলতি বছরে আলু পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি রাজ্য প্রশাসনের রক্তচাপ বাড়িয়ে দিয়েছে। কারণ রাজ্যে সবজির দাম নিয়ন্ত্রণ না করতে পারলে তার দায় নেবে না কেন্দ্র। সম্প্রতি কেন্দ্র যে কৃষি নীতি প্রনয়ণ করেছে তাতে আলু, পেঁয়াজকে অত্যবশ্যকীয় পণ্যের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তবে ওই আইনেই বলা হয়েছে, পরিস্থিতি যদি বেগতিক হয় তবে রাজ্য সরকারের অধিকার থাকবে মজুত রুখতে পদক্ষেপ করার। রুষ্ট মমতা তাই মোদি সরকারের অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আইনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে চিঠি লিখতে চলেছেন। অমিত শাহের রাজ্য সফরের মাঝেই এই নিয়ে সুর চড়িয়েছেন তিনি। সাধারণ মানুষের স্বার্থে যাতে এই আইনটি কার্যকর না করা হয় তার জন্য আবেদন জানাবেন তিনি।৪০ থেকে ৫০ টাকা কিলো দরে বিক্রি হচ্ছে আলু। পেঁয়াজ ৭০ থেকে ৮০ টাকা। কঠিন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে সাধারণ মানুষের। মুদ্রাস্ফীতির বাজারে আলুসিদ্ধ ভাত খাওয়াও এখন বিলাসিতায় পরিণত হয়েছে। কী দিয়ে উদরপূর্তি করবেন গরিব থেকে মধ্যবিত্ত মানুষ সেটাই এখন তাঁরা বুঝে উঠতে পারছেন না। একে দাম বৃদ্ধি তার পরে নতুন অত্যাবশ্যকীয় পণ্য পরিষেবা আইনে তালিকা থেকে বাদ পড়েছে পেঁয়াজ, আলু। এমনকী ভোজ্য তেল, ডালও থাকছে না অত্যাবশ্যকীয় পন্য। তাতে আরও দাম বাড়বে সেগুলির, এমনই মনে করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Share this News
error: Content is protected !!