মে 21, 2022

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর


নিজস্ব সংবাদদাতা : রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ উঠেছে। দাবি আদায়ে আলোচনা, অন্দোলন, ঘেরাও, আইন-আদালত পর্যন্ত হয়েছে। চাকরি প্রার্থীরা অনশনেও বসেছেন। এইসবের মাঝেই প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগ নিয়ে বড় ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। বললেন,আগামী দু’মাসের মধ্যে সমস্ত শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগ করা হবে। বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে শূন্যপদের সংখ্যা ১৬,৫০০। বর্তমানে প্রায় ২০,০০০ পরীক্ষার্থী টেট পাস করেছে। তাই তাদের নিয়োগ প্রক্রিয়া আগামী জানুয়ারি মাসের মধ্যে শুরু করে দেওয়া হবে। নতুন করে আবার টেট পরীক্ষা নেওয়ার কথাও ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী।কোভিড একটু কমলেই ডিসেম্বর, জানুয়ারির মধ্যে এই নিয়োগ হয়ে যাবে। মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, এই ১৬ হাজার ৫০০ নিয়োগ হয়ে যাওয়ার পরে যে সাড়ে তিন হাজার পরীক্ষার্থী বাকি থাকবেন, মানে যাঁরা টেট পাশ করেছে, তাঁদেরও ধাপে ধাপে নিয়োগ হয়ে যাবে। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এছাড়া আরও প্রায় আড়াই লাখ পরীক্ষার্থী আবেদন করেছিলেন, তাঁরা তৃতীয়বারের জন্য টেট দিতে চান। তাই প্রাথমিক শিক্ষা দফতর ঠিক করেছে তাঁরা চাইলে অফলাইনে তাঁদের পরীক্ষা নেওয়া হবে। এই নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হয়ে যাওয়ার পরেই সেই পরীক্ষা হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী জানান,শিক্ষা দফতর সিদ্ধান্ত নিয়েছে চলতি বছর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের কোনও টেস্ট পরীক্ষা হবে না। সরাসরি ২০২১-এর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় বসতে পারবে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণিতে পাঠরত সকল পড়ুয়া।প্রসঙ্গত, কোভিড পরিস্থিতিতে গত মার্চ মাস থেকে লকডাউনের জেরে বন্ধ রয়েছে স্কুল। অনলাইন ব্যবস্থার মাধ্যমে চলছে পঠনপাঠন। এই পরিস্থিতিতে আগামী বছরের যারা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী যারা, তাদের টেস্ট পরীক্ষার কী হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়।ইতিমধ্যেই ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত রাজ্যের সব স্কুল বন্ধ থাকবে বলে ঘোষণা করেছে সরকার। অবশেষে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণায় সেই ধোঁয়াশা কাটল।

Share this News
error: Content is protected !!