মে 26, 2022

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

ফাইজারের পর করোনা টিকাকরণের অনুমতি চাইল সেরাম ইনস্টিটিউট


নিজস্ব সংবাদদাতা : করোনা-যুদ্ধে আরও এক বড় পদক্ষেপ। প্যানডেমিক পরিস্থিতিতে দেশের স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের প্রয়োজনীয়তা ও জনগণের বৃহত্তর স্বার্থের কথা মাথায় রেখে শীঘ্রই দেশের বাজারে Oxford COVID-19 ভ্যাকসিন আনার দাবি জানিয়েছে সেরাম ইনস্টিটিউট। এই সপ্তাহ থেকেই ব্রিটেনের বাজারে করোনার টিকা নিয়ে আসছে মার্কিন ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট ফাইজার। ফাইজারের এই আবেদন জানানোর বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার একদিনের মধ্যেই দেশের বাজারে Oxford COVID-19 ভ্যাকসিন আনার জন্য আবেদন জানায় সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া।ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট (এসআইআই) কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের জন্য ট্রায়াল পরিচালনা করতে অ্যাস্ট্রাজেনিকা পিএলসির সঙ্গে জুটি বেঁধেছে। এটি লক্ষ্যভিত্তিক জনগোষ্ঠীর মধ্যে COVID-19 প্রতিরোধের জন্য কার্যকরভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিকেল রিসার্চের (আইসিএমআর) পৃষ্ঠপোষকতায় কোভিশিল্ডের তিন ধাপের ক্লিনিকাল ট্রায়াল চলছে। এছাড়া যুক্তরাজ্য এবং ব্রাজিলেও এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চলছে। মোট চারটি ক্লিনিকাল স্টাডিজে দেখা গেছে কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন অনেকটাই নিরাপদ ও সুরক্ষিত। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে দারুণ কাজ করে এটি। তা ছাড়া এই ভ্যাকসিন অনেকটাই সহনীয়। অর্থাত্ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কম, ভ্যাকসিনকে মানবশরীরে প্রয়োগ করা গেলে তা সহ্য করতে পারবেন আক্রান্তরা। তাই দেশের মানুষের মধ্যে ভ্যাকসিনটিকে যথাযথ ভাবে প্রয়োগ করা যাবে। ICMR-এর মতে, ইতিমধ্যেই ভ্যাকসিনের ৪০ মিলিয়ন ডোজ তৈরি করে ফেলেছে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। এবং কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যেই এগিয়ে চলেছে ভ্যাকসিন প্রয়োগের পরিকল্পনা।ফাইজ়ারের কোনও ট্রায়াল হয়নি ভারতে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই প্রতিষেধক দেওয়ার ক্ষেত্রে বিপদের সম্ভাবনা রয়েছে। তাছাড়া মার্কিন টিকা ফাইজ়ারের দাম অন্যান্য প্রতিষেধকের তুলনায় বেশি এবং রক্ষণাবেক্ষণও জটিল। মাইনাস ৭০ ডিগ্রি সেলিসিয়াসে ফাইজার সংরক্ষণ করার মতো পরিকাঠামো আদৌ দেশে আছে কিনা প্রশ্ন উঠছে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ফাইজ়ারের থেকে কোভিশিল্ড ভারতীয় পরিবেশে অনেক বেশি কার্যকর হতে পারে।

Share this News
error: Content is protected !!