মে 19, 2022

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত বিহারের এক তৃতীয়াংশের বেশি সাংসদ-বিধায়ক

নিজস্ব সংবাদদাতা : বিহারের ৩৬% সাংসদ-বিধায়কদের বিরুদ্ধে ‘ক্রিমিনাল কেস’ রয়েছে। মহিলাদের বিরুদ্ধে অপরাধ থেকে শুরু করে খুন, হেনস্থা, দুর্নীতি ইত্যাদি বিভিন্ন ফৌজদারি মামলা অভিযুক্ত বিহারের এক তৃতীয়াংশের বেশি সাংসদ ও বিধায়করা। প্রার্থীদের হলফনামা থেকে রিপোর্ট তৈরি করে জানিয়েছে অ্যাসোসিয়েশন অফ ডেমোক্র‌্যাটিক রিফর্মস। রিপোর্ট বলছে, রাষ্ট্রীয় জনতা দলের টিকিটে জিতে এসেছেন ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ৬২ জন সাংসদ ও বিধায়ক। ১৭ জন কংগ্রেসের এবং ১১ জন এলজেপি-র নেতাও রয়েছে ওই তালিকায়।
রাজ্যের সাংসদ ও বিধায়ক মিলিয়ে ৮২০ জনের মধ্যে ২৯৫ জন নেতা নানাবিধ অপরাধে অভিযুক্ত। ২০০৫ সালের পরের হিসেব বলছে,
এঁদের মধ্যে বিজেপির টিকিটে জিতে এসেছেন ৮৪ জন
বিজেপির এনডিএ শরিক জেডিইউ-র ১০১ জন রয়েছেন
একটি নির্দিষ্ট দলের মোট সাংসদ ও বিধায়কদের মধ্যে কতজনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি অপরাধ রয়েছে, তার নিরিখে অবশ্য এগিয়ে বিজেপি শরিক এলজেপি। ২০০৫ সালের পর থেকে,
জিতে আসা মোট ২৭ জন সাংসদ বিধায়কদের মধ্যে ১১ জনই গুরুতর মামলায় অভিযুক্ত, অর্থাত্ ৪১%
ঠিক পরেই রয়েছে আরজেডি, ৩৯%
কংগ্রেসের টিকিটে জিতে আসা ৪৬ জন সাংসদ ও বিধায়কদের মধ্যে ১৭ জনের বিরুদ্ধে এখনও মামলা চলছে, অর্থাত্ ৩৭%
বিজেপি ও জেডিইউ-এর ৩৪% সাংসদ ও বিধায়কই গুরুতর ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত
নীতীশ কুমারের জনতা দল ইউনাইটেডের সঙ্গে বিহারে জোট হয়েছে বিজেপির। বিজেপির তরফে আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, যদি তারা জেডিইউ-এর থেকে ভাল ফলও করে তাহলেও নীতীশ কুমারই বিহারের মুখ্যমন্ত্রী থাকবেন। কেন্দ্রে এনডিএ-র সঙ্গী থাকলেও বিহারের বিধানসভা নির্বাচনে লোক জনশক্তি পার্টি আলাদা ভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।২৪৩ আসনের বিহার বিধানসভার নির্বাচন হচ্ছে তিন দফায়। প্রথম দফার নির্বাচন হবে ২৮ অক্টোবর। দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার ভোট হবে যথাক্রমে ৩ ও ৭ নভেম্বর। ভোট গণনা করা হবে ১০ নভেম্বর।

Share this News
error: Content is protected !!