মে 20, 2022

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

বছরের শুরুতে চাপ বাড়ল অনিল আম্বানির

নিজস্ব সংবাদদাতা : অনিল আম্বানির রিলায়েন্স কমিউনিকেশন, রিলায়েন্স টেলিকম ও রিলায়েন্স ইনফ্রাটেলের ব্যাঙ্ক খাতাকে জালিয়াতি অ্যাকাউন্ট বলে চিহ্নিত করল স্টেট ব্য়াঙ্ক অব ইন্ডিয়া। ব্যাঙ্কের এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে দিল্লি হাইকোর্টকেও। যা ধিরুভাই আম্বানির ছোট ছেলেকে আরও সমস্যায় ফেলতে পারে বলেই আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।পর্যবেক্ষকদের অনেকের মতে, অনিল আম্বানির ব্যবসা রসাতলে তো গেছেই, স্টেট ব্যাঙ্কের মতো বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক অনিলের সংস্থার ব্যাঙ্ক খাতাকে যে শ্রেণিতে ফেলেছে তা বিশ্বাসযোগ্যতাতেও ধাক্কা দিল। দিল্লি হাইকোর্টে একটি মামলা প্রসঙ্গে স্টেট ব্যাঙ্ক তাদের রিপোর্ট পেশ করেছে। যে ঘটনার পর ব্যাঙ্ক জালিয়াতি নিয়ে সিবিআই তদন্ত অনিবার্য হয়ে উঠছে বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে আদালত এদিন ব্যাঙ্ককে নির্দেশ দিয়েছে ওই অ্যাকাউন্টগুলো নিয়ে স্থিতাবস্থা বজায় রাখা হয়।এসবিআই-এর পক্ষ থেকে জানান হয়েছে অডিট চলাকালীন তারা তহবিলের অপব্যবহার, বিচ্যুতি আর তহবিলের সাইফোনিংয়ের সন্ধান পেয়েছে। আর সেই কারণেই তারা অ্যাকাউন্টগুলিকে জালিয়াতি হিসেবে চিহ্নিত করেছে। সূত্রের খবর অনিল আম্বানির ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টগুলিতে সব মিলিয়ে ৪৯ হাজার কোটি টাকা ছিসয যার মধ্যে রিলায়েন্স ইফ্রাটলের অ্যাকাউন্ট ছিল ১২ হাজার কোটি টাকা। আর রিলায়েন্স টেলিকমের খাতায় ছিল ২৪ হাজার কোটি টাকা। নিয়ম অনুযায়ী একবার ব্যাঙ্ক কোনও অ্যাকাউন্টকে জালিয়াতি হিসেবে ঘোষণা করার পর আরবিআইকে তা ৭ দিনের মধ্যে জানাতে হবে। আর জালিয়াতির পরিমাণ যদি এক কোটি টাকার বেশি হয় তাহলে ৩০ দিনের মধ্যে কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরোতে একটি অভিযোগ দায়ের করতে হবে।রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নিয়ম অনুযায়ী কোনও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে অনাদায়ী ঋণ বহুদিন ধরে থাকলে তা নন পারফর্মিং অ্যাসেট বলে চিহ্নিত করা হয়। তার পর ব্যাঙ্ক ফরেনসিক অডিট করে। তাতে যদি তহবিল তছরূপ, অন্য খাতে টাকা সরানো, বেআইনি লেনদেনের মতো ব্যাপারে সন্ধান পাওয়া যায়, তা হলে ফ্রড বা জালিয়াতি অ্যাকাউন্ট বলে চিহ্নিত করা হয়। তার পর তা জানাতে হয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে।

Report by নিজস্ব সংবাদদাতা
Reported on – 07/01/2021

Share this News
error: Content is protected !!