মে 26, 2022

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

বাংলার পর এবার হিন্দিতে মুক্তি পাচ্ছে অনির্বাণের ‘ড্রাকুলা স্যর’, প্রকাশ্যে নতুন পোস্টার

লকডাউনে বন্দি বাঙালি জীবনে উৎসবের মরশুমে সবচেয়ে বড় উপহার বোধহয় ছিল সিনেমা হল খুলে যাওয়া। আর একঝাঁক নতুন সিনেমা নিয়ে ফের হলমুখী হওয়া সিনেপ্রেমীদের। বেশ কয়েকমাস পর বাঙালির বিনোদুনিয়ায় বেশ ছাপ ফেলেছে অনির্বাণ ভট্টাচার্য-মিমি চক্রবর্তীর সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত সাইকো থ্রিলার সিনেমা – ‘ড্রাকুলা স্যর’ । দর্শকরা মুগ্ধ তো হয়েছেনই, পুজোর সময়ে বক্স অফিসে ‘ড্রাকুলা স্যর’-এর লক্ষ্মীলাভও ভালই হয়েছে। আর তাতেই নতুন পথ খুলে গিয়েছে পরিচালক দেবালয় ভট্টাচার্যের এই বাংলা সাইকো থ্রিলারের। এবার তার যাত্রা শুরু হচ্ছে হিন্দির জগতে। শোনা যাচ্ছে, দিওয়ালির আগেই দেশজুড়ে হিন্দিতে মুক্তি পাচ্ছে রক্তিম-মঞ্জরীর এই কাহিনি।

‘ড্রাকুলা স্যর’-এর কাহিনির একটু আভাস দেওয়া যাক। ২১ অক্টোবর অর্থাৎ একেবারে পুজোর সময়ে মুক্তি পাওয়া সাইকো থ্রিলারটির মুখ্য চরিত্র রক্তিম (অনির্বাণ ভট্টাচার্য) স্কুলে বাংলা পড়ায়। তার ‘ক্যানাইন টিথ’ দুটো একটু বড়। সেই থেকে রক্তিমের নাম হয়ে যায় ‘ড্রাকুলা স্যর’। তার একটা নিজস্ব জার্নি আছে। হঠাৎ করে স্কুল থেকেই ড্রাকুলা স্যর রক্তিম একদিন পৌঁছে যায় পুলিশ স্টেশন। পুলিশি জেরার মুখে পড়তে হয় তাঁকে। কী করে রক্তিম থেকে ড্রাকুলা স্যরে পরিণত হলেন তিনি, তাঁর ভালবাসা মঞ্জরীই (মিমি) বা কীভাবে রক্তিমের মুক্তির লড়াইয়ের সাথী হলেন, সেসবই রয়েছে ছবিতে। আজকের প্রেক্ষাপটে ছবির কাহিনি অবয়ব পেলেও ১৯৭০-এর রক্তঝরা সময়ের প্রেক্ষাপটে চিত্রনাট্যের বুনন।

রক্তিম চরিত্রে আজকের অভিনয় জগতের অন্যতম প্রতিভাবান শিল্পী অনির্বাণ  যথারীতি মুগ্ধ করে ফেলেছেন দর্শকদের। পাশাপাশি সাংসদ-অভিনেত্রী তথা টলিউডের তারকা মিমি এখানে খানিকটা ডি-গ্ল্যাম চরিত্রে তাঁর যোগ্য সঙ্গিনীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। এছাড়া ‘ড্রাকুলা স্যর’-এ আরও যাঁদের অভিনয় মন কেড়েছে, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন বিদীপ্তা চক্রবর্তী, রুদ্রনীল ঘোষ, কাঞ্চন মল্লিক।


টলিউড মাতিয়ে এবার ‘ড্রাকুলা স্যর’ পা রাখছে সর্বভারতীয় স্তরে। দিওয়ালির আগেই হিন্দিতে মুক্তি পাচ্ছে এই বাংলা সাইকো থ্রিলার। এ নিয়ে প্রযোজনা সংস্থা এসভিএফের (SVF) ডিরেক্টর মহেন্দ্র সোনি বলছেন, ”আগামী ১৩ নভেম্বর ‘ড্রাকুলা স্যর’ হিন্দিতে মুক্তি পাচ্ছে। আর তাতেই দিওয়ালিটা আরও সুন্দর হয়ে যাবে। ইতিমধ্যেই সিনেমাটি দর্শকদের হৃদয় ছুঁয়েছে। এর তুমুল জনপ্রিয়তায় এতটাই চাপ তৈরি হয়েছে যে অন্যান্য ভাষায় ছবিটি মুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমার আশা, হিন্দিতে এটি মুক্তি পাওয়ার হিন্দিভাষী দর্শকদের কাছ থেকে দারুণ ফিডব্যাক পাব।” মাস খানেকের মধ্যেই দেবালয়-অনির্বাণ-মিমির সিনেমা আরও লম্বা রেসের ঘোড়া হওয়ার প্রস্তুতি সারছে। ফলে বাংলা হোক বা হিন্দি, ‘ড্রাকুলা স্যর’-এর রহস্য কিন্তু মিস করা যাবেই না।

Share this News
error: Content is protected !!