মে 21, 2022

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

বিধায়কের চড় সাংবাদিককে , অস্বস্তিতে তৃণ মূল কংগ্রেস

নিজস্ব সংবাদদাতা : সাংবাদিককে সপাটে চড় মারার অভিযোগ উঠল ময়নাগুড়ির তৃণমূল বিধায়ক অনন্তদেব অধিকারীর বিরুদ্ধে। ময়নাগুড়ির জল্পেশ মন্দিরে শিলিগুড়ি ডেভেলপমেন্ট অথরিটির একটি অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে জেলা পরিষদের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন ময়নাগুড়ির বিধায়ক অনন্তদেব অধিকারী। সেই খবর ফলাও করে ছাপে একটি প্রথমসারির দৈনিক। ময়নাগুড়ি ফুটবল ময়দানে ওপেন জিমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গিয়ে সাংবাদিককে ডেকে চড় মারার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে।অভিযোগ, কেন তাঁর বিরুদ্ধে ওই খবর করা হয়েছে, তা জানতে চান বিধায়ক। তা নিয়ে তর্কাতর্কির মধ্যেই সাংবাদিককে সপাটে চড় মারেন তিনি। সেই সময় আকস্মিকতার রেশ কাটিয়ে উঠেই সাংবাদিকের সঙ্গে থাকা চিত্র সাংবাদিকও ক্যামেরা ‘প্যান’ করেন বিধায়কের দিকে। ময়নাগুড়ির তৃণমূল বিধায়ক অনন্তদেব অধিকারীর গোটা ‘কীর্তিই’ তখন লেন্সবন্দি। এগিয়ে এসেছেন সে সময় সেখানে থাকা সমস্ত সাংবাদিকরাই। এক নামী সংবাদপত্রের সাংবাদিককে ডেকে ‘চড়’ মারার খবর ততক্ষণে ছড়িয়ে পড়েছে উল্কাগতিতে। এই ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল জানায় এই ঘটনা একেবারেই অভিপ্রেত নয়। জেলা নেতৃত্ব নিশ্চয়ই এই বিষয়টি খতিয়ে দেখবে। বেশ কিছুদিন ধরেই দলের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যেই একাধিক মন্তব্য করে চলেছেন ময়নাগুড়ির বিধায়ক। মূলত ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন প্রশান্ত কিশোরের বিরুদ্ধে। সেই খবর সংগ্রহ করাতেই ‘গোঁসা’ হয় বিধায়কের। প্রথমে চড় মারার কথা অস্বীকার করলেও চাপে পড়ে তা স্বীকার করে নেন অনন্তদেব। তাঁর সাফাই, “অনেক দিন ধরেই আমার বিরুদ্ধে একের পর এক খবর করছিল। এভাবে কী মাথা ঠান্ডা রাখা যায় বলুন!” এদিকে আক্রান্ত সাংবাদিকের অভিযোগ, বিধায়ক তাঁকে ডেকে অ্যান্টি খবর না করার হুঁশিয়ারি দেন। এ প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য তথা প্রবীণ সাংবাদিক রন্তিদেব সেনগুপ্ত বলেন, “সংবাদমাধ্যম গণতন্ত্রের চারটি স্তম্ভের একটি স্তম্ভ। সাংবাদিককে আঘাত করা মানে গণতন্ত্রকে আঘাত করা। এই ঘটনার আমি তীব্র নিন্দা করছি।’

Report by নিজস্ব সংবাদদাতা
Reported on – 06/01/2021

Share this News
error: Content is protected !!