ফেব্রুয়ারী 4, 2023

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

মহামারীর জেরে ছেদ পড়ল বাঁকুড়ার প্রাচীন পরম্পরায়

নিজস্ব সংবাদদাতা : শারদোৎসবের শেষ লগ্নে পৌঁছে দশমী থেকে দ্বাদশী এক সময়ের মল্ল রাজধানী বিষ্ণুপুর শহরের পাড়ায় পাড়ায় দুপুর থেকে রাত্রী ঘুরে বেড়াতেন রামায়নের বহুচর্চিত চরিত্র বিভীষণ, জাম্বুবান, হনুমান থেকে সুগ্রীবেরা। নিয়ম করে দশমীর রাতে ‘কুম্ভকর্ণ বধ’, একাদশীতে ‘ইন্দ্রজিৎ বধ’ আর সব শেষে দ্বাদশীর রাতে ‘রাবন কাটা’ বা ‘রাবন বধে’র মধ্য দিয়ে উৎসবের সমাপ্তি ঘোষণা করা হতো। সঙ্গে কাড়া-নাকাড়া আর অন্যান্য বাদ্যযন্ত্রের শব্দে মুখরিত হতো প্রাচীন এই পুর শহরের আকাশ বাতাস। এই বছর করোনার কাঁটায় বিদ্ধ হয়ে প্রাচীন এই ধারাবাহিকতায় ছেদ পড়ল। সম্ভবত এই প্রথম শারদোৎসবে বিষ্ণুপুরের রাস্তায় দেখা মিলল না বিভীষণ, জাম্বুবান, হনুমান সুগ্রীবদের। ফলে দীর্ঘ এক বছরের প্রতিক্ষা শেষেও রামায়নের এই সব বীর চরিত্রদের নাচ দেখার থেকে বঞ্চিত হলেন শহরবাসী। তবে নিয়মরক্ষার তাগিদে করোনাবিধি মেনে বাবুর পাড়া রঘুনাথ জীউ মন্দিরের সামনে ‘রাবন কাটা’ উৎসবে অংশ নিলেন সীমিত সংখ্যক মানুষ। দীর্ঘদিন বিশেষ এই উৎসবে অংশগ্রহণকারী এক সদস্য জানান, প্রতিবছর পুলিশ প্রশাসনের কাছ থেকে অনুমতি নেওয়ার পর এই উৎসব ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এবার করোনার জেরে সেই অনুমতি মেলেনি। সেকারণেই সমস্ত আয়োজন বন্ধ রাখা হয়েছে বলে তিনি জানান।

Report by Prasun Das
Reported on – 30-October-2020

Share this News
error: Content is protected !!