জানুয়ারী 31, 2023

Disha Shakti News

New Hopes New Visions

সব কোভিড যোদ্ধাদের জন্য টিকা চান মমতা

নিজস্ব সংবাদদাতা : করোনা সংক্রমণে দু’টি জেলা চিন্তা বাড়াচ্ছে রাজ্যে। জেলা দু’টি হল শহর কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগণা। এই দুই জেলার সংক্রমণ ও মৃত্যু কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না বলে অভিযোগ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য ভবনের বুলেটিনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, একদিনে কলকাতায় আক্রান্ত ৮৯৪ জন। এই পর্যন্ত শহরে মোট আক্রান্তের সংখ্যাটা প্রায় ৮০ হাজার। তথ্য অনুযায়ী,৭৯ হাজার ৪৭৭ জন। অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যাটা ৬,৯৬২ জন। গত ২৪ ঘন্টায় কলকাতায় মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। বুধবার সংখ্যাটা ছিল ১৮ জনে। সব মিলিয়ে শহরে মোট মৃতের সংখ্যা ২,১৭২ জন। তবে কলকাতায় এই পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭০ হাজার ৩৪৩ জন। একদিনে ৯৩৩ জন। অন্যদিকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা উত্তর ২৪ পরগণায় একদিনে আক্রান্ত ৮৭৮ জন। এই পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৭৪ হাজার ৪৩৭ জন। আর গত ২৪ ঘন্টায় এই জেলায় মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের। তার ফলে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১,৫৪১ জন। আক্রান্তের তুলনায় বেড়েছে দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা। এদিকে রাজ্যগুলিকে কেন্দ্র যা জানিয়েছে, তাতে কোভিড চিকিত্সার সঙ্গে সরাসরি যুক্তরাই প্রারম্ভিক পর্বে টিকা পাবেন। সেই তত্ত্বে চিকিত্সক, নার্স, চিকিত্সাকর্মী, টেকনিশিয়ান-সহ হাসপাতালের মধ্যে নানা কাজে যুক্ত থাকা কর্মীদেরও প্রাথমিক টিকার তালিকাভুক্ত করা যাবে। গত প্রায় সাত মাসে সামনের সারিতে থেকে কাজ করে প্রাণ হারানো কোভিড-যোদ্ধাদের তালিকায় চিকিত্সক, চিকিত্সাকর্মী ছাড়াও রয়েছেন পুলিশ এবং সাধারণ প্রশাসনিক আধিকারিকেরা। ফলে টিকা বরাদ্দের ক্রমতালিকা তৈরিতে আগেভাগে প্রস্তুত থাকতে চাইছে রাজ্য। যদিও কোভিড চিকিত্সার সঙ্গে যুক্ত চিকিত্সক-চিকিত্সাকর্মীদের পাশাপাশি কোভিড-ব্যবস্থাপনার সঙ্গে যুক্ত পুলিশ এবং সাধারণ প্রশাসনের কর্মী-আধিকারিকদেরও সামনের সারিতে থাকা যোদ্ধা হিসেবেই বিবেচনা করে রাজ্য প্রশাসন। এই পরিস্থিতিতে সরকারি স্বাস্থ্য-বিশেষজ্ঞদের অনেকেই মনে করছেন, টিকাদানের পরবর্তী ধাপ থেকে পর্যায়ক্রমে তাঁদেরও তালিকাভুক্ত করার সুযোগ হয়ত দেবে কেন্দ্র।

Share this News
error: Content is protected !!